টিএসসির পথশিশু জিনিয়াকে উদ্ধার করেছে পুলিশ

Share on Facebook

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকা থেকে নিখোঁজ হওয়ার সাত দিন পর এ এলাকার ফুলবিক্রেতা শিশু জিনিয়াকে নারায়ণগঞ্জ থেকে উদ্ধার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার এইচ এম আজিমুল হক জানান, সোমবার রাতে নারায়ণগঞ্জের পঞ্চবটী থেকে তারা নয় বছরের শিশুটিকে উদ্ধার করেন।

এ ঘটনায় লোপা তালুকদার নামে এক তরুণীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার পুরো পরিচয় জানা না গেলেও জিনিয়ার মা যে দুজনকে সন্দেহ করার কথা পুলিশকে বলেছিলেন, লোপা তাদের একজন।গোয়েন্দা কর্মকর্তা আজিমুল হক বলেন, “কী উদ্দেশ্যে, কারা জিনিয়াকে সেখানে নিয়ে গিয়েছিল তা আমরা জানার চেষ্টা করছি। বিস্তারিত পরে বলা যাবে।”
গত মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে সর্বশেষ জিনিয়াকে টিএসসি সংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ফটকে অপরিচিত দুজন নারীর সঙ্গে ফুচকা খেতে দেখেছিলেন তার মা সেনুরা বেগম। এরপর থেকে জিনিয়ার হদিস পাওয়া যাচ্ছিল না।অনেক জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে পরদিন বুধবার সেনুরা বেগম শাহবাগ থানায় গিয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। সেখানে তিনি অপরিচিত ওই দুই নারীকে ঘিরে সন্দেহের কথা বলেন।
মঙ্গলবার সকালে তিনি বলেন, পুলিশ বলেছে, ওই মহিলারাই আমার মেয়েকে ফুসলিয়ে ও নানা প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে গেছিল। তবে এখনো আমার বুকের মানিককে দেখতে পাই নাই। আজকে শাহবাগ থানায় নিয়ে আসবে।ট্রাকচালক স্বামী দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পর সাত বছর আগে কিশোরগঞ্জের ভৈরব থেকে তিন সন্তানকে নিয়ে টিএসসি এলাকায় আসেন সেনুরা।
দুই মেয়ে সিনথিয়া (৭), জিনিয়া (৯) ও ছেলে পলাশকে (১৭) নিয়ে টিএসসি বারান্দায় রাত কাটান তিনি। দিনের বেলা ফুল বিক্রি করে মায়ের সংসারে জোগান দেয় জিনিয়া ও সিনথিয়া। আর পলাশ এখন একটা চায়ের দোকানে কাজ করে।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বা টিএসসিতে যাদের আনাগোনা, তাদের অধিকাংশেরই চেনা মিষ্টি হাসির দুই শিশু সিনথিয়া-জিনিয়াকে।
জিনিয়া নিঁখোজ হওয়ার পর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠনের নেতা ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা ফেইসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শিশুটির খোঁজে সরব হয়ে ওঠেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

3 + 5 =