পর্যটকদের জন্য ১৭ বিলিয়নের দিরিয়া গেট প্রকল্প সৌদি সরকারের

বিশ্ব পর্যটন বাজারে আত্মপ্রকাশ করবার লক্ষ্যে ভিশন ২০৩০-এর বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়িত করতে শুরু করেছে সৌদি আরব সরকার। তারই ধারাবাহিকতায়, বিখ্যাত দিরিয়া শহরে দিরিয়া গেট প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে গতকাল। এই প্রকল্পের বাজেট ধরা হয়েছে ১৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

0
55

সৌদি আরবের জন্মভূমি দিরিয়া শহর বিখ্যাত কাদা-ইটের স্থাপত্যের জন্যও। ঐতিহাসিক এই স্থান দিরিয়াকে এখন পর্যটন গন্তব্যে রূপ দিতে কাজ শুরু করেছে সৌদি সরকার। গত মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) ধুমধাম আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিরিয়া গেট প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। এর মধ্যে ছিল জাঁকজমকপূর্ণ ডিনার ও সংগীতানুষ্ঠান।

সৌদি সরকারের ভিশন ২০৩০ বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে দিরিয়াকে ভাবা হচ্ছে দেশের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় পর্যটন স্পট। তাই দিরিয়া গেট প্রকল্পের বাজেট ধরা হয়েছে ১৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার! এখানে পর্যটকসহ ১ লাখ মানুষ বিচরণ করতে পারবেন একসাথে। এতে থাকবে বিলাসবহুল বিভিন্ন ব্র্যান্ডের শোরুম, শতাধিক ক্যাফে ও রেস্তোরাঁ।

দিরিয়া গেট প্রকল্প নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অত্যন্ত আশাবাদী। তারা আশা করছে যে বিশ্বমানের সংস্কৃতি, শিক্ষা ও বিনোদনমূলক সুবিধা উপভোগ করতে দিরিয়া গেটে প্রতি বছর আড়াই থেকে তিন কোটি পর্যটক সমাগম হবে। চারুকলা, জাদুঘর, গ্যালারিসহ দর্শনার্থীদের জন্য থাকবে আনন্দের ও অভিনব সব আয়োজন।

দিরিয়া গেট উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জেরি ইনজেরিলো বলেছেন, ‘আমরা আশাবাদী যে দিরিয়া বৈশ্বিক সংস্কৃতির অংশ হয়ে উঠবে। বিশ্বে সবচেয়ে বেশি পর্যটক সমাগম হওয়া স্পটের তালিকায় জায়গা করে নেবে এই শহরটি। কারণ একমাত্র এই পর্যটনকেন্দ্রটিই সৌদি আরবের ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতির গল্প বলে।’

মন্তব্য করুনঃ-

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে